সিপিএমের সঙ্গে আঁতাত করে নন্দীগ্রাম গণহত্যা করেছিল অধিকারী পরিবার: মমতা

সিপিএমের সঙ্গে আঁতাত করে নন্দীগ্রাম গণহত্যা করেছিল অধিকারী পরিবার: মমতা

ফের একবার নন্দীগ্রাম গণহত্যা নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফের দাবি করলেন, সিপিএমের সঙ্গে সমঝোতা করে নন্দীগ্রাম গণহত্যা করিয়েছিল অধিকারী পরিবার। বৃহস্পতিবার পূর্ব মেদিনীপুরে ভোটপ্রচারে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, সিপিএমের সঙ্গে আন্ডারস্ট্যান্ডিং করে আপনারা নন্দীগ্রামে এই গণহত্যা ঘটিয়েছিলেন। একদিন না একদিন তা প্রমাণ হবে।

মমতা বলেন, ‘মনে পড়ে লড়াইগুলোর সময়। বাপ – ব্যাটা কোথায় ছিলেন? ১৫ দিন বাড়ি থেকে ভয়ে বেরোননি। আর আমি এখনও বলছি, সিপিএমের সঙ্গে আন্ডারস্ট্যান্ডিং করে আপনারা নন্দীগ্রামে এই গণহত্যা ঘটিয়েছিলেন। একদিন না একদিন তা প্রমাণ হবে। সিপিএমের যারা বেঁচে আছে লুকিয়ে লুকিয়ে জিজ্ঞাসা করবেন, তারা সব ঘটনা বলে দেবে। আর সেদিন আমি না থাকলে নন্দীগ্রাম থাকত না। আমি গর্বের সঙ্গে বলি, রাতের পর রাত আমি রাস্তায় কাটিয়েছি। মানুষের পাশে ছুটে এসেছি। নিজে এঁকে, সেই টাকা বিক্রি করে সাহায্য করেছি। আজও ২১ জুলাই নন্দীগ্রামের শহিদ পরিবার যায়। তার কারণ, আমরা শহিদ তর্পণে শহিদ স্মরণ করি। এরা করেনি।’

২০২১ সালের মার্চ মাসে বিধানসভা ভোটের প্রচারেও একই দাবি করেছিলান মমতা। নন্দীগ্রামের বিরুলিয়া বাজারে এক সভায় মমতা বলেছিলেন, ‘বাপ – ব্যাটার পারমিশন ছাড়া পুলিশ ঢুকতে পারত না।’ মমতা সেদিন বলেছিলেন, ‘কারা গুলি চালিয়েছিল আপনাদের মনে আছে। মনে পড়ছে? অনেকে পুলিশের ড্রেস পরে এসেছিল। নিশ্চয়ই ভুলে যাননি আপনারা? আমার সব মনে আছে। মনে আছে হওয়াই চটি পরে এসেছিল ওরা। এবারও সেই সব কেলেঙ্কারি করার জন্য ওরা প্রস্তুত হচ্ছে। অনেকে বিএসএফ, সিআইএসএফের ড্রেসও কিনছে।’

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় সেদিন শিশিরবাবু বলেছিলেন, ‘আমার ৮২ বছরের জীবনে এত বড় মিথ্যাবাদী দেখিনি। নন্দীগ্রামে হারবে বুঝে ভুল বকছে। মানুষ এর জবাব দেবে।’ বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রাম আসন থেকে বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারীর কাছে ২ হাজারের কিছু কম ভোটে হেরেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

loksabha Election 2024 Politics West Bengal