লোনের বোঝা কমছে! EMI দিতে দেরি হলেও বেশি চাপ হবে না

লোনের বোঝা কমছে! EMI দিতে দেরি হলেও বেশি চাপ হবে না

লোনের ক্ষেত্রে আমজনতার বোঝা কিছুটা কমতে চলেছে। কারণ ১ এপ্রিল থেকে লোনের ক্ষেত্রে নয়া নিয়ম চালু করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (আরবিআই)। সেই নয়া নিয়মের ফলে কোনও মাসে ইএমআই দিতে দেরি হলে গ্রাহকদের থেকে সুদের উপরও যে সুদ ধার্য করা হত, সেই ঝঞ্জাট থেকে তাঁরা মুক্তি পাবেন। নির্দিষ্ট সময় ইএমআইয়ের টাকা দিতে না পারলে শুধুমাত্র জরিমানা নেওয়া যাবে। কিন্তু সুদের উপরও সুদ ধার্য করা যাবে না বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

নয়া নিয়ম অনুযায়ী, দেরিতে ইএমআই প্রদানের জন্য সংশ্লিষ্ট কিস্তির অর্থের উপর যে সুদ গুনতে হত গ্রাহকদের, সেটা নেওয়া যাবে না বলে ব্যাঙ্ক এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলিকে জানিয়ে দিয়েছে আরবিআই। অর্থাৎ ইএমআই দিতে দেরি হলেও কিস্তির টাকার উপর সুদ বসানো যাবে না। সুদের সঙ্গে যুক্ত করা যাবে না বাড়তি কোনও চার্জ। তবে দেরিতে ইএমআই দিলে এমনিতে জরিমানা নেওয়া যাবে। ঋণের মূল অঙ্ক বা অতিরিক্ত সুদ নিতে পারবে না কোনও ব্যাঙ্ক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান। 

বিষয়টি লোনের ভাষায় বলতে গেলে আরবিআই যে জিনিসটি নিষিদ্ধ করেছে, সেটা হল ‘পেনাল ইন্টারেস্ট’। আর অন্য বিষয়টি হল ‘পেনাল চার্জেস’। আক্ষরিক অর্থে ‘পেনাল চার্জেস’ হল একটি নির্দিষ্ট চার্জ। আর গ্রাহকদের যে সুদ নেওয়া হয়, সেটার উপর যে বাড়তি চার্জ ধার্য করা হয়, সেটা হল ‘পেনাল চার্জেস’। 

রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার তরফে জানানো হয়েছে, ‘পেনাল চার্জেস’-র ক্ষেত্রে কোনও সর্বোচ্চসীমা আরোপ করা হয়নি। তবে নিজেদের মুনাফা বৃদ্ধির জন্য যাতে ব্যাঙ্ক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলি সেই ‘পেনাল চার্জেস’ ধার্য না করে, সেই বিষয়টির উপরও গুরুত্ব আরোপ করা হয়েছে। যাতে একটি শৃঙ্খলা তৈরি করা হয়, সেজন্যই ‘পেনাল চার্জেস’ ধার্য করার পরামর্শ দিয়েছে আরবিআই। তাই ‘পেনাল চার্জেস’-র অঙ্কটা একটি নির্দিষ্ট সীমার মধ্যে রাখতে হয়। লোনের চুক্তির সঙ্গে সেই অঙ্কটা সামঞ্জস্যপূর্ণ রাখার নির্দেশ দিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক।

India