রোহিতের ক্যাপ্টেন্সি কাড়তে বুক কাঁপেনি, হার্দিক তো চুনোপুঁটি!

রোহিতের ক্যাপ্টেন্সি কাড়তে বুক কাঁপেনি, হার্দিক তো চুনোপুঁটি!

২০২২ সালে ঠিক যেভাবে পরিস্থিতি সামলেছিল চেন্নাই সুপার কিংস, এবার সেই পথেই হাঁটতে পারে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। তফাৎ হল এই যে, চেন্নাইকে দলের ভিতরের চ্যালেঞ্জ সামলাতে হয়েছিল। এক্ষেত্রে মুম্বই চাপে ঘরে-বাইরে।

আইপিএলে খারাপ শুরু মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের কাছে নতুন কোনও বিষয় নয়। শুরুতেই পরপর ম্যাচ হেরেও প্লে-অফে যেতে এমনকি চ্যাম্পিয়ন হতেও দেখা গিয়েছে তাদের। তবে সেবার সমর্থকরা পাশে থাকায় মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের কাজ সহজ হয়ে দাঁড়ায়। রোহিত শর্মা দক্ষ হাতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। এবার হার্দিক পান্ডিয়ার নেতৃত্বে আইপিএল ২০২৪-এর টানা তিন ম্যাচে পরাজিত হয়েছে মুম্বই। এবার শুরু থেকেই সমর্থকরা বেঁকে বসেছে দল তথা নতুন ক্যাপ্টেনের উপর।

২০২২ সালে ধোনি নিজে ক্যাপ্টেন্সি ছেড়ে রবীন্দ্র জাদেজাকে নেতা করেছিলেন। তবে ফলাফল অনুকূল না হওয়ায় টুর্নামেন্টের মাঝপথেই চেন্নাই নেতৃত্ব ফেরায় ধোনির হাতে। এবার মরশুম শুরুর ঠিক আগে সকলকে চমকে দিয়ে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ক্যাপ্টেন বদল করে। তারা নেতা করে দলে ফেরায় হার্দিক পান্ডিয়াকে। পরিস্থিতি যেদিকে এগোচ্ছে, তাতে হার্দিকের হাত থেকে নেতৃত্ব কেড়ে পুনরায় রোহিতের হাতে ব্যাটন তুলে দিতে পারে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স।

গত সোমবার আইপিএল ২০২৪-এ নিজেদের তৃতীয় লিগ ম্যাচে মাঠে নামে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। তাদের পরের ম্যাচ ৭ এপ্রিল ওয়াংখেড়েতেই। দিল্লির বিরুদ্ধে সেই ম্যাচের আগে মুম্বইয়ের অন্দরমহলে নেতৃত্ব বদলের হাওয়া বইতে শুরু করেছে। দিল্লি ক্যাপিটালসের বিরুদ্ধে হার্দিক যদি মুম্বইয়ের হয়ে টস করতে নামেন, তবে তাঁর কাছে সেটি অগ্নিপরীক্ষা হিসেবে বিবেচিত হতে পারে। দিল্লির বিরুদ্ধে জয়ে ফিরতে না পারলে হার্দিকের কাছ থেকে নেতৃত্ব কেড়ে নিতে পারে মুম্বই।

টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন তারকা মনোজ তিওয়ারি মনে করছেন যে, বর্তমান পরিস্থিতিতে মুম্বই কঠোর পদক্ষেপ নিতেই পারে। যারা বিস্তর সাফল্য সত্ত্বেও রোহিতকে ক্যাপ্টেন্সি থেকে সরাতে পারে, তাদের পক্ষে হার্দিকের ডানা ছাঁটা বিশেষ সমস্যার হবে বলে মনে করছেন না তিওয়ারি। তিনি নিজের এমন ধারণার কারণ হিসেবে রাজস্থান ম্যাচে হার্দিকের বল না করার দিকে ইঙ্গিত করেন।

ক্রিকবাজের আলোচনায় মনোজ বলেন, ‘রাজস্থান ম্যাচে বল না করাই বুঝিয়ে দিচ্ছে হার্দিক চাপে রয়েছে। প্রথম ২ ম্যাচে হার্দিক শুরুতেই বল করে। রাজস্থান ম্যাচের দুই ইনিংসেই পরিবেশ বোলিংয়ের অনুকূল ছিল। তা সত্ত্বেও ও বল করেনি। যেভাবে ওকে ‘অভ্যর্থনা’ জানিয়েছে ওয়াংখেড়ে, তাতে ও চাপে পড়ে গিয়েছে।’

পরক্ষণেই মনোজ বলেন, ‘আমি আরও বড় একটা কথা বলতে চাই। মাঝের এই বিরতিতেই মুম্বই রোহিতের হাতে নেতৃত্ব ফিরিয়ে দিতে পারে। এমনটা হতেই পারে। যতটুকু বুঝেছি, তাতে প্রয়োজনে এমন সিদ্ধান্ত নিতে সংকোচ বোধ করবে না ফ্র্যাঞ্চাইজি। ওরা রোহিতের কাছ থেকে ক্যাপ্টেন্সি কেড়ে নিয়ে হার্দিকের হাতে দায়িত্ব তুলে দিতেও দু’বার ভাবেনি। যে পাঁচবার ট্রফি জিতিয়েছে, ক্যাপ্টেন্সি থেকে তাকে সরাতে যাদের বুক কাঁপেনি, যে একটাও ম্যাচ জেতেনি, তাঁর দায়িত্ব কাড়তে সেই ফ্র্যাঞ্চাইজির কুণ্ঠা হবে বলে মনে হয় না।’

Sports