মোবাইল কেড়ে নেয়ায় মাকে হত্যা করল মেয়ে

মোবাইল কেড়ে নেয়ায় মাকে হত্যা করল মেয়ে

আইফোন কেড়ে নেয়ায় ছুরিকাঘাতে মাকে হত্যা করেছে ১৩ বছর বয়সী এক কিশোরী। শুক্রবার (২৯ মার্চ) বিকেলে যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়ার উইলকস-বারে এ ঘটনা ঘটে।

সোমবার (১ এপ্রিল) এক প্রতিবেদনে নিউজউইক জানিয়েছে, শুক্রবার বিকেলে দক্ষিণ শেরম্যান স্ট্রিটের ২০ ব্লকের একটি বাড়ি থেকে খবর পেয়ে স্থানীয় পুলিশ বিভাগের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে যান। ঘটনাস্থলে গিয়ে তারা সেখানে এক নারীর গলায় ও পিঠে একাধিক ছুরিকাঘাতের আঘাত দেখতে পান। আর ওই নারীর মাথা থেকে প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছিল। তাকে ঘটনাস্থলেই মৃত ঘোষণা করা হয়। ঘটনাস্থলে ১১ বছর বয়সী এক কিশোরকেও দেখতে পান পুলিশ। তার পিঠেও ছুরিকাঘাতের চিহ্ন ছিল। তবে তা বেশি গুরুতর না। যদিও ঘটনাস্থল থেকে ছুরি বা কোনো ধারালো অস্ত্র পায়নি তারা। এছাড়াও ঘটনাস্থল থেকে নিহত ওই নারীর ১৩ বছর বয়সী মেয়েকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, ওই কিশোরী তার মাকে হত্যা করার কথা স্বীকার করেছে।

ওই কিশোরী জানায়, তার মা ফোন কেড়ে নেয়ায় তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে সে তার মাকে ছুরিকাঘাত করে। আর যে ছুরি দিয়ে সে তার মাকে হত্যা করেছে সেটা প্রতিবেশির বাড়ির কাছে ফেলে এসেছে বলেও জানায় সে।

ওই কিশোরী পুলিশকে আরও বলেছে, 

আমি আমার মাকে হত্যা করেছি। তিনি বেঁচে থাকলে আমাকে কখনোই ক্ষমা করতেন না। আমার কাছে ফোন ছিল না, কারণ আমাদের ঝগড়া শুরুর আগেই মা কেড়ে নিয়েছিল। আমিই আমার মায়ের মৃত্যুর কারণ।

গ্রেফতার কিশোরী এখন পুলিশ হেফাজতে আছে। তবে সে অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় পুলিশ তার নাম পরিচয় প্রকাশ করেনি। এছাড়াও নিহত নারী ও জখম ১১ বছরের কিশোরের নামও জানায়নি পুলিশ।

Offbeat World