মোদী-রাহুলের বিধিভঙ্গ নিয়ে নোটিশের জবাব কং-BJP’র

মোদী-রাহুলের বিধিভঙ্গ নিয়ে নোটিশের জবাব কং-BJP’র

লোকসভা নির্বাচনে প্রচারে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং রাহুল গান্ধীর বিরুদ্ধে আদর্শ আচরণ বিধির ভঙ্গের অভিযোগ উঠেছিল। তার ভিত্তিতে নির্বাচন কমিশন কংগ্রেস এবং বিজেপি দুই দলের প্রধানদের কাছে নোটিশ পাঠিয়েছিল। জানা গিয়েছে, সেই নোটিশের প্রেক্ষিতে নির্বাচন কমিশনের কাছে সম্প্রতি জবাব দিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি মল্লিকার্জুন খাড়গে এবং বিজেপির সভাপতি জেপি নড্ডা। প্রত্যেকেই নিজের দলের নেতাদের সমর্থনে জবাবদিহি করেছেন।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গিয়েছে, বিজেপি সভাপতি জেপি নড্ডা সোমবার সন্ধ্যায় কমিশনের কাছে মোদীর সমর্থনে উত্তর জমা করেছেন। অন্যদিকে, গত সপ্তাহে কংগ্রেস সভাপতি মল্লিকার্জুন খাড়গে রাহুল গান্ধীর সমর্থনে নিজের জবাব দাখিল করেছেন। দুই দলের নেতাদের জবাব খতিয়ে দেখবেন নির্বাচন কমিশনের আধিকারিকরা। তারপরেই পদক্ষেপ করা হবে বলে কমিশন সূত্রে জানা গিয়েছে। 

প্রসঙ্গত, নির্বাচনী প্রচারে নরেন্দ্র মোদীর নামে মেরুকরণের অভিযোগ তুলে কমিশনের কাছে নালিশ জানায় কংগ্রেস। অন্যদিকে, রাহুল গান্ধীর বিরুদ্ধেও বিদ্বেষমূলক বক্তব্যের অভিযোগ তুলে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছিল বিজেপি। এর ভিত্তিতে গত ২৫ এপ্রিল দুটি জাতীয় দলের প্রধানদের নোটিশ পাঠানো হয়েছিল। এরপর কংগ্রেসের তরফে উত্তর দিতে আরও কিছুটা সময় চাওয়া হয়েছিল। 

সেক্ষেত্রে উভয় দল নোটিশের জবাব দিতে পর্যাপ্ত সময় পেয়েছে। তা খতিয়ে দেখে নির্বাচন কমিশন কোনও পদক্ষেপ করলে বা পরামর্শ দেওয়ার প্রয়োজন মনে করলে সেই বার্তা দ্রুত দুই দলের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হবে বলে নির্বাচন কমিশনের সূত্রে জানা গিয়েছে। নির্বাচন কমিশনের এক আধিকারিকের বক্তব্য, যেকোনও পদক্ষেপ বা পরামর্শের গুরুত্ব রয়েছে। এটি সব দলের নেতা ও প্রার্থীদের কাছে একটি শক্তিশালী বার্তা পাঠায়।

প্রসঙ্গত, নির্বাচনী প্রচারের সময় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে পদক্ষেপ করেছে নির্বাচন কমিশন।  তাদের তরফে আগেই জানানো হয়েছিল, রাজনৈতিক দলগুলিকে তাদের প্রার্থীদের, সাধারণ এবং তারকা প্রচারকারীদের আচরণের জন্য দায়িত্ব নিতে হবে। আর তারকা প্রচারকরা নিজের বক্তব্যের জন্য দায়ী থাকবেন। প্রসঙ্গত, সোমবার ৯৬টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এখনও পর্যন্ত দুই-তৃতীয়াংশেরও বেশি আসনে ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। পরবর্তী দফায় কম আসনে ভোট হবে।

India Politics