মিঠুনের ‘পরকীয়া’-র গুঞ্জনে মুখ খুললেন ‘প্রাক্তন’ মমতা শঙ্কর

মিঠুনের ‘পরকীয়া’-র গুঞ্জনে মুখ খুললেন ‘প্রাক্তন’ মমতা শঙ্কর

প্রয়াত অভিনেত্রী শ্রীদেবীর সঙ্গে একসময় মিঠুন চক্রবর্তীর সম্পর্কের খবর নিয়ে সরগরম হয়েছিল পুরো টলিউড ইন্ডাস্ট্রি। যদিও মিঠুন, জীবনের এই অধ্যায়কে সামনে আনতে চান না। তবে কিছুদিন আগে এক সাক্ষাৎকারে, মিঠুন আর শ্রীদেবীকে নিয়ে কথা বললেন মমতা শঙ্কর।

৭০ এর দশকে বিনোদন দুনিয়ায় ঝড় তুলেছিলেন মিঠুন। পুরুষ ও মহিলা, উভয়ের মধ্যেই মিঠুনকে নিয়ে ক্রেজ ছিল চোখে পড়ার মতো। মিঠুনের হেয়ারস্টাইল, পোশাক নকল করতেন সেই সময়ের তরুণ সমাজ। এই স্টাইলে হয়তো মন মজেছিল শ্রীদেবীরও। সুদীর্ঘ কেরিয়ারে অনেকের সঙ্গে নাম জড়ায় ডিস্কো ডান্সার অভিনেতার। তবে শ্রীদেবীর মতো চর্চা, আর কাউকে নিয়ে হয়নি। 

শোনা যায়, বিবাহিত মিঠুনেরই প্রেমে পড়েছিলেন শ্রীদেবী। আর দুজনের ঘনিষ্ঠতা কানে আসে যোগিতা বালিরও। স্বামীর সঙ্গে শ্রীদেবীর অবৈধ সম্পর্ক মেনে নিতে পারেননি যোগিতা। শোনা যায়, তিনি আত্মহত্যার চেষ্টাও করেছিলেন সেই সময়। ইন্ডাস্ট্রির অন্দরে একথাও ভাসে যে, গোপনে বিয়ে করেছিলেন তাঁরা। কিন্তু শ্রীদেবী যখন বুঝতে পারেন মিঠুন তাঁর স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদ চান না, সম্পর্ক থেকে সরে যান প্রয়াত অভিনেত্রী।

তবে এই অধ্যায়ের সবটাই ছড়িয়েছে লোকমুখে। কথা বলেননি কেউই কোনওদিন। সম্প্রতি নিবেদিতা অনলাইনকে এই অধ্যায়ের ব্যাপারে মুখ খুলে মমতা শঙ্কর বলেন, ‘একসময় কলকাতায় দেখা হয়েছিল, নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে। আমি ওকে বলেছিলাম, ‘তুই তো খুব ভালো আছিস, এদিকে শ্রীদেবী ওদিকে যোগিতা’। আমার কথা শুনে ও বলেছিল, ‘মম বলিস না, বললে একদিকে তুইও কাঁদতে আরাম্ভ করবি। আমিও কাঁদতে আরাম্ভ করব।’ এটা কেন বলেছিল, কী জন্য বলেছিল, আমি বলতে পারব না।’

প্রসঙ্গত, মিঠুন আর মমতা শঙ্করের মধ্যে ছিল একসময় ভালোবাসার সম্পর্ক, যা শুরু হয়েছিল মৃগয়ার সেটে। দুজনের বিয়ের কথাও হয়েছিল। পাকা হয়েছিল তারিখও। তবে তা ভেঙে যায়। একটু সময় চেয়েছিলেন মিঠুন। তখনই বিয়ে করতে চাননি। এই সম্পর্ক আর এগোয়নি। তারপরে অবশ্য দুজনের মধ্যে সম্পর্ক অনেক স্বাভাবিক হয়। প্রজাপতি সিনেমাতে স্ক্রিনশেয়ারও করেছেন তাঁরা। 

Entertainment