ভুয়ো মামলা করার অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে! হাইকোর্টের দ্বারস্থ সন্দেশখালির মাম্পি

ভুয়ো মামলা করার অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে! হাইকোর্টের দ্বারস্থ সন্দেশখালির মাম্পি

আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইতে গিয়ে জেল হেফাজতে যেতে হয়েছে সোমবার। পরদিনই সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে কলকাতা হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করলেন সন্দেশখালির প্রতিবাদী মাম্পি দাস। মঙ্গবার তাঁর আবেদন গ্রহণ করেছে আদালত। বৃহস্পতিবার বিচারপতি জয় সেনগুপ্তের এজলাসে আবেদনের শুনানি হবে। ওদিকে এদিন ফের সন্দেশখালি পৌঁছেছেন বিজেপি নেত্রী, আইনজীবী প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল। সন্দেশখালিতে পুলিশি নির্যাতনের বিরুদ্ধে সেখানকার বাসিন্দাদের আইনি সাহাজ্য দিতে সেখানে পৌঁছেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

সন্দেশখালিতে শেখ শাহজাহাঁ, শিবু হাজরা, উত্তম সরদারদের বিরুদ্ধে করা ধর্ষণের অভিযোগ ভুয়ো বলে দাবি করে এক মহিলার ভিডিয়ো সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ্যে আসে। মহিলা দাবি করেন, পিয়ালি দাস ওরফে মাম্পি নামে এক বিজেপি কর্মী তাঁকে দিয়ে সাদা কাগজে সই করিয়ে ওই অভিযোগ দায়ের করিয়েছিলেন। এখন সেই ভুয়ো অভিযোগ তুলে নিতে চান তিনি। সেকথা জেনে মাম্পিরা তাঁকে হুমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ করতে শোনা যায় তাঁকে। এর পরই মাম্পি, রেখা পাত্রদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে সন্দেশখালি থানার পুলিশ।

সেই মামলায় জামিনের আবেদন করে সোমবার সকালে সন্দেশখালি থানায় আত্মসমর্পণ করেন মাম্পি। কিন্তু জামিন দেওয়ার পরিবর্তে তাঁকে গ্রেফতার করে বসিরহাট আদালতে পেশ করে পুলিশ। কিন্তু আদালত জামিনের পরিবর্তে ৭ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেয়।

সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে বুধবার কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন পিয়ালি দাসের আইনজীবী। তিনি বলেন, পুলিশ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে পিয়ালি দাস ও রেখা পাত্রদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে। তৃণমূল কর্মীদের রক্ষা করতে পক্ষপাতদুষ্ট আচরণ করছে পুলিশ। আবেদন গ্রহণ করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। আদালত সূত্রে জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার বিচারপতি জয় সেনগুপ্তের এজলাসে মামলাটির শুনানি হতে পারে।

ওদিকে তাঁর বিরুদ্ধে পুলিশ মিথ্যা মামলা করেছে বলে দাবি করে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন বসিরহাটের বিজেপি প্রার্থী রেখা পাত্র। একই সঙ্গে তাঁর বিরুদ্ধে কোন থানায় কী কী মামলা রয়েছে তা জানতে চেয়েছেন তিনি। আদালতের কাছে নিরাপত্তা চেয়েও আবেদন করেছেন সন্দেশখালির এই প্রতিবাদী বধূ।

বুধবার সন্দেশখালি যান আইনজীবী প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল। সেখানে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে কথা বলে কার বিরুদ্ধে কী কী মামলা রয়েছে তা জানার চেষ্টা করেন তিনি।

loksabha Election 2024 Politics West Bengal