বিদ্যুৎ বাঁচাতে হাঁসফাঁস গরমে কত ডিগ্রিতে রাখতে হবে এসি?

বিদ্যুৎ বাঁচাতে হাঁসফাঁস গরমে কত ডিগ্রিতে রাখতে হবে এসি?

গ্রীষ্মের দহনে জ্বলছে রাজ্যের একাধিক জেলা। হাঁসফাঁস গরমে তীব্র অস্বস্তিতে বঙ্গবাসী। সকাল থেকে যেমন থাকছে সূর্যের চোখ রাঙানি আবার বেলা বাড়তি সূচ ফোটাচ্ছে রোদ।  গত কয়েকদিন ধরে তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রির নিচে নামার নাম নিচ্ছে ন। তীব্র গরমে বেড়েছে এসি, ফ্যানের ব্যবহার বেড়েছে। তার ফলে স্বাভাবিকভাবেই বেড়েছে বিদ্যুতের চাহিদা। সেই অবস্থার মধ্যেও নির্বাচনী প্রচার চালাচ্ছেন রাজনৈতিক নেতারা। সেই নির্বাচনী প্রচার থেকেই কত ডিগ্রিতে এসি চালিয়ে বিদ্যুৎ সাশ্রয় করতে হবে সে বিষয়ে পরামর্শ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একইসঙ্গে গরমের সময় ভোট করা নিয়ে নির্বাচন কমিশনকেও তোপ দাগলেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

বুধবার আউশগ্রামে নির্বাচনী সভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাধারণ মানুষকে বিদ্যুৎ সাশ্রয় করার পরামর্শ দিয়েছেন। সেই প্রসঙ্গে এসি ব্যবহারের কথা উঠে এসেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্যে। তিনি বলেছেন, ‘আপনারা অনেকেই জানেন না, অনেকেই ১৭ তে (ডিগ্রি সেলসিয়াস) চালিয়ে দেয় এয়ার কন্ডিশন মেশিনটা। দার্জিলিংয়ে থাকবেন বলে। ১৮তে চালিয়ে দেন। এর ফলে বিদ্যুতের চাহিদা বাড়ছে।’ এ প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তীব্র গরমে নিজে এসি ব্যবহার করছেন কিনা সে কথাও জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘এই গরমে আমি নিজে খুব একটা এসি ব্যবহার করি না। আর আমি যে ঘরে থাকি সেই ঘরে এসি ব্যবহার করি না।’ এরপরে এসিতে তাপমাত্রা কত ডিগ্রিতে রাখতে হবে সেই প্রসঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘আমি ২৭ এর নিচে এসি চালায় না। আপনারা চালান, কিন্তু বিদ্যুৎ সঞ্চয় করুন বিদ্যুৎ অপচয় করবেন না।’

অন্যদিকে, তীব্র গরমের কথা বলতে গিয়ে নির্বাচন কমিশন কেউ আক্রমণ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন বিজেপিকে সন্তুষ্ট করার জন্য মানুষকে কষ্ট দিয়ে ৩ মাস ধরে ইলেকশন করছে। গতবার আগেই নির্বাচন হয়ে যেত। কিন্তু এবার এমন কী হল যে জুন পর্যন্ত নির্বাচন টেনে নিয়ে যাওয়া হল?’ তীব্র দহনের কথা বোঝাতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘তীব্র গরমের জন্য স্কুলের বাচ্চাদের ছুটি দেওয়া হয়েছে। কারণ ওরা স্কুলে যেতে পারছে না ,ওদের কষ্ট হচ্ছে না, অভিভাবকদের কষ্ট হচ্ছে।’

এদিকে, ভোট প্রচারের জন্য মমতা গরমের মধ্যে তিন সপ্তাহের বেশি সময় ধরে বাড়ির বাইরে রয়েছেন। সেপ্রসঙ্গেও নিজের কথা জানান মমতা। দাবদাহের মধ্যে তিনি কতটা কষ্টের মধ্যে নির্বাচনী প্রচার সারছেন সে বিষয়টি এদিন তিনি তুলে ধরেন।

Politics West Bengal