পাইপ দিয়ে গরম খিচুড়ি গেল আটকে পড়া বাংলার শ্রমিকদের কাছেও

পাইপ দিয়ে গরম খিচুড়ি গেল আটকে পড়া বাংলার শ্রমিকদের কাছেও

অবশেষে উদ্ধারকাজের নবম দিনে উত্তরকাশীতে ভেঙে পড়া সুরঙ্গে আটকে পড়া শ্রমিকদের কাছে খিচুড়ি পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হল। অন্তত ৪১জন শ্রমিক আটকে পড়েছেন ওই সুরঙ্গে। তার মধ্য়ে বাংলার শ্রমিকরাও রয়েছেন। সোমবার প্রায় ৬ ইঞ্চি একটি পাইপলাইন করা হয়। সেখান দিয়ে শ্রমিকদের কাছে খাবার পৌঁছে দেওয়া হয়েছে বলে খবর। এএনআই ও হিন্দুস্তান টাইমস সূত্রে খবর।

এই প্রথম গরম গরম খিচুড়ি তাদের কাছে দেওয়া হয়েছে। ছোট বোতলে খিচুড়ি ভরে তাদেরকে পাঠানো হয়। দিনের পর দিন সেই সুরঙ্গে আটকে রয়েছেন তারা। ভয়াবহ পরিস্থিতি। কীভাবে তারা সেখানে রয়েছেন সেটা ঠিকঠাক জানতে পারা যাচ্ছে না। তবে অবশেষে তাদের কাছে খিচুড়ি দেওয়া সম্ভব হয়েছে এটাই আশার কথা।

এদিকে তাদের কাছে খাবার পৌঁছে দেওয়ার জন্য় ধ্বংসস্তুপ খোঁড়ার প্রয়োজনীয়তা ছিল। কিন্তু যে ট্রাক এই ড্রিল মেশিনটি নিয়ে আসছিল সেটাও খাদে পড়ে যায়। এরপর অন্যভাবে পাইপ বসানো হয়। সেই পাইপ দিয়েই তাদের কাছে অবশেষে খাবার পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হয়েছে।

সেই ১২ নভেম্বর থেকে তাঁরা আটকে পড়েছেন সুরঙ্গের মধ্য়ে। প্রতিটি মিনিট যেন বিপদের মধ্য়ে কাটছে। সিকয়ারার দিকে সুরঙ্গ ধসে গিয়েছে। শ্রমিকরা টানেলের ২ কিমি এলাকা জুড়ে থাকা অংশে আটকে পড়েছেন বলে খবর। এদিকে ওই এলাকাটি অনেকটাই তৈরি করা হয়েছিল। কিন্তু তার আগে থেকে ভেঙে গিয়েছে। তবে এবার খাবার পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হয়েছে এটা একটা বড় ব্য়াপার।

উদ্ধারকারী টিমের দায়িত্বে থাকা দীপক পাটিল আগেই জানিয়েছেন, উদ্ধারকারী টিমের কাছে খাবার পৌঁছে দেওয়টা সব থেকে আগে করতে হচ্ছে। তাদের কাছে ওষুধ, মোবাইলের চার্জার আর খাবার পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। ধাপে ধাপে এগুলি করার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

কিন্তু কী ধরনের খাবার দেওয়া হবে? উদ্ধারকারী টিমের প্রধান জানিয়েছেন, এনিয়ে চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলা হয়েছে। কী ধরনের খাবার দেওয়া হবে তার তালিকা তৈরি করা হয়েছে। আপাতত কলা, আপেল, খিচুড়ি, ডালিয়া পৌঁছে দেওয়ার কথা ভাবা হয়েছে। চওড়া মুখের বোতল আনা হয়েছে। সেগুলি দিয়েই খাবার দেওয়া হচ্ছে।

এবার বোতলে গরম গরম খিচুড়ি ভরা হচ্ছে। যিনি রান্না করেছেন সেই কুক হেমন্ত জানিয়েছেন, এই প্রথম তাঁদের জন্য় গরম খিচুড়ি দেওয়া সম্ভব হচ্ছে। যে ধরনের খাবারের কথা বলা হয়েছে শুধু সেগুলিই দেওয়া হচ্ছে।

India