দুর্নীতির অভিযোগে বিপাকে প্রথম করোনা ভ্যাকসিন আবিস্কারক!

দুর্নীতির অভিযোগে বিপাকে প্রথম করোনা ভ্যাকসিন আবিস্কারক!

করোনা রুখতে প্রথম ভ্যাকসিন আবিস্কার করেছিলেন যে চিনা বিজ্ঞানী, তাঁকেই দুর্নীতির অভিযোগে সংসদ থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। করোনা মহামারীর সময় ২০২০ সালে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন তৈরি করে সারা বিশ্বকে তাকে লাগিয়েছিলেন এই বিজ্ঞানী। চায়না ন্যাশনাল ফার্মাসিউটিক্যাল গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান চায়না ন্যাশনাল বায়োটেক গ্রুপের (সিএনবিজি) চেয়ারম্যান ইয়াং জিয়াওমিং হলেন তিনিই। দুর্নীতি ও আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে ইয়াংয়ের ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেসের (এনপিসি) সদস্যপদ বাতিল করা হয়েছে। এনপিসি একটি বিবৃতি জারি করে বলেছে যে ইতিমধ্যেই দলের শৃঙ্খলা কমিটি দ্বারা ইয়াংয়ের তদন্ত করা হচ্ছে।

  • ইয়াং প্রথম করোনভাইরাস ভ্যাকসিন আবিষ্কার করেছিলেন

৬২ বছর বয়সী ইয়াং জিয়াওমিং একজন অভিজ্ঞ গবেষক, যিনি চিনের প্রথম করোনভাইরাস ভ্যাকসিন, সিনোফার্ম BBIBP-Corv তৈরি করেছিলেন। মূলত প্রস্তুতকারী দলের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তিনি। পরে এই ভ্যাকসিনের সাধারণ ব্যবহারের অনুমোদন দেওয়া হয়েছিল। করোনা ভাইরাসের প্রথম কেস ২০২০ সালের মার্চ মাসে চিনের উহান শহরে রিপোর্ট করা হয়েছিল। যেখানে একজন মহিলাই প্রথম এই মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন। এরপর ধীরে ধীরে এটি চীনের দখল নেয় এবং তারপর সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছিল এই ভাইরাস। বিশ্বে এই রোগে বহু মানুষ মারা গিয়েছেন। মৃত্যুর হুমকি থেকে বাঁচতে ইয়াং-এর দল দ্বারা তৈরি করা কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনটি ২০২০ সালের ডিসেম্বরে সাধারণ ব্যবহারের জন্য অনুমোদিত হয়েছিল। সিনোফার্ম শট এবং সিনোভাক বায়োটেকের করোনাভাক ছিল করোনার জন্য সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত ভ্যাকসিন। এর পাশাপাশি চিনের বাইরেও পাঠানো হয়েছে প্রচুর পরিমাণে। এর আগে করোনা ভাইরাস মহামারী মোকাবিলায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখার জন্য ইয়াংকে জাতীয় পুরস্কারে ভূষিত করা হয়েছিল। পরবর্তীকালে, তিনি হো লিউং হো লি ফাউন্ডেশন পুরস্কারে ভূষিত হয়েছিলেন, বিজ্ঞান ও চিকিৎসা ক্ষেত্রে চিনা বিজ্ঞানীদের দেওয়া হয় এই পুরস্কার।

Corona Virus Health Lifestyle India