আমি আজ না হোক কাল এর বদলা তো নেবই: মমতা

আমি আজ না হোক কাল এর বদলা তো নেবই: মমতা

২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রামে শুভেন্দু অধিকারীর কাছে হারের জ্বালা যে তিনি এখনও ভুলতে পারেননি তা ফের একবার প্রকাশ হয়ে গেল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্তব্যে। বৃহস্পতিবার শুভেন্দুর দুর্গ বলে পরিচিত পূর্ব মেদিনীপুরের হলদিয়ায় তমলুক কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী দেবাংশু ভট্টাচার্যের সমর্থনে জনসভায় তিনি বলেন, ‘লোডশেডিং করিয়ে রেজাল্ট পাল্টে দিয়েছিল। আমি আজ না হোক কাল এর বদলা তো নেবই।’

এদিন মমতা বলেন, ‘আমাকে প্রতারণা করা হয়েছে। আমার রিগিং করা হয়েছে। টোটাল ভোট লুঠ করা হয়েছে। সেদিন DM, SP সবাইকে চেঞ্জ করে দিয়ে বিজেপি ক্ষমতায় আছে বলে গায়ের জোরে ইলেকশন কমিশনের সাহায্যে ইলেকশন হয়ে যাওয়ার পরেও লোডশেডিং করিয়ে রেজাল্ট পাল্টে দিয়েছিল। আমি আজ না হোক কাল এর বদলা তো নেবই। কী ভাবে নেব, কেমন করে নেব, সেটা আগামী দিন পথ দেখাবে।’

বিধানসভা নির্বাচনে তিনি যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নন্দীগ্রামে পরাজিত করেছিলেন তা কোনও সভায় বলতে ভোলেন না শুভেন্দু অধিকারী। এমনকী মমতাকে কম্পার্টমেন্টাল চিফ মিনিস্টার বলেও কটাক্ষ করে থাকেন তিনি। শুভেন্দুকে এও বলতে শোনা গিয়েছে, ‘ওনার কানের কাছে বাজে, শুভেন্দুর কাছে হেরেছি… হেরেছি… হেরেছি। যত দিন বেঁচে থাকবেন তত দিন এটা বাজবে।’ বিরোধী দলনেতার বক্তব্য যে একেবারে অমূলক নয় তা এদিন বুঝিয়ে দিলেন মমতা।

২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেন শুভেন্দু অধিকারী। এর পর তিনি নন্দীগ্রাম থেকে ভোটে লড়বেন বলে ঘোষণা করেন। পালটা ওই কেন্দ্র থেকেই ভোটে লড়াই করার ঘোষণা করেন মমতা। বলেন, ভবানীপুর ও নন্দীগ্রাম আমার কাছে ২ বোন। ভোটের ফল প্রকাশ হলে দেখা যায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শুভেন্দু অধিকারীর কাছে ২ হাজারের কিছু কম ভোটে হেরেছেন। হেরেও মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নেন মমতা। এর পর ভবানীপুর কেন্দ্র থেকে উপনির্বাচনে জয়ী হন তিনি। হারের পর নন্দীগ্রামের সংগঠনের দায়িত্ব পুরোপুলি কলকাতার নেতৃত্বের হাতে তুলে দেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

loksabha Election 2024 Politics West Bengal