মাত্র ৫৬ মিনিটে চক্কর দেওয়া যায় যে দেশ!


দেশের বাসিন্দারা সারা দিনে নিজেদের দেশকে একবার নয়, অনেকবারই চক্কর লাগান! এ এক অদ্ভুত দেশ। ঝকঝকে নীল আকাশের নিচে অবস্থিত এই দেশটি পায়ে হেঁটে পুরোটা ঘুরতে লাগবে মাত্র ৫৬ মিনিট
ফ্রান্সের একেবারে পাশের দেশ মোনাকো। ফ্রান্স ঘিরে রেখেছে দেশটির তিনদিক। আর অন্য পাশে রয়েছে ইতালি। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে পৃথিবীর যে কোনও প্রান্তের পর্যটককে আকর্ষণ করবেই এই দেশ। কিন্তু দেশটির আয়তন মাত্র ২.০২ বর্গ কিলোমিটার! 
২০১৫ সালে হওয়া আদশশুমারী অনুযায়ী, জনসংখ্যা মাত্র ৩৮,৪০০! আয়তনের দিক দিয়ে এই দেশ পৃথিবীর দ্বিতীয় ক্ষুদ্রতম দেশ। তালিকায় ভ্যাটিকানের পরেই এর স্থান। যদিও আয়তনের তুলনায় এ দেশের জনঘনত্ব অনেকটাই বেশি। সেই দিক থেকে এই দেশ পৃথিবীর অন্যতম ঘনবসতিপূর্ণ দেশ।
পৃথিবীর সব থেকে ছোট নামের ভ্রমণস্থল, যাবেন নাকি একবার! মোনাকোর বাসিন্দারা সারা দিনে দেশকে একবার নয়, অনেকবারই চক্কর লাগান! দেশের বাসিন্দারা সবাই প্রায় ধনী। সেই কারণে এখানে ফর্মূলা ওয়ান কার রেসিং খুবই জনপ্রিয়। দারুণ ঝাঁ চকচকে সব ক্যাসিনো রয়েছে এখানে। এদেশের মানুষদের কোনও আয়কর দিতে হয় না।  
সব মিলিয়ে মোনাকো আয়তনে যতই ছোট হোক, পর্যটকদের কাছে তা দারুণ আকর্ষণীয়। এক ঘণ্টারও কম সময়ে যে দেশকে পুরোটা চক্কর কেটে ফেলা যায়, সেখানে আসতে তাই পর্যটকদের উৎসাহের কমতি নেই।
Powered by Blogger.