সাত বছর পর বলিউডে ফিরছেন সেলিনা

[pullquote align="normal"] [/pullquote]

২০০১ সালে মিস ইন্ডিয়া হয়েছিলেন কলকাতার মেয়ে সেলিনা জেটলি। প্রাক্তন এই মিস ইন্ডিয়া একসময় পরপর হিন্দি ছবিতে অভিনয় করার সুবাদে বলিউডে একটা নিজস্ব জায়গা তৈরি করে ফেলেছিলেন। এরপর হোটেল ব্যবসায়ী পিটার হাগকে বিয়ে করে দুবাই নিবাসী হয়ে যান সেলিনা। তিন সন্তানের জননী তিনি। তবে এ বছরের শুরুতে তার এক ছেলে সামশের মারা যায়। সেই ধাক্কা সামলে উঠে দীর্ঘ সাত বছর পর বলিউডে কামব্যাক করছেন সেলিনা।

মা ও মেয়ের সম্পর্কের উপর ভিত্তি করে আবর্তিত এই ছবিতে মেয়ের চরিত্রে দেখা যাবে সেলিনাকে। মায়ের চরিত্রে অভিনয় করছেন লিলেট দুবে। সেলিনা ও লিলেট ছাড়াও এই ছবির প্রধান পুরুষ চরিত্রটিতে অভিনয় করতে দেখা যাবে মডেল কাম অভিনেতা আজহার খানকে।প্রয়াত পরিচালক ঋতুপর্ণ ঘোষের পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকীতে তাকে শ্রদ্ধা জানিয়ে নিজের দ্বিতীয় হিন্দি শর্ট ফিল্ম ‘সিজন’স গ্রিটিংস’ এর কথা ঘোষণা করেছিলেন পরিচালক রামকমল মুখোপাধ্যায়। রামকমলের সেই ছবির হাত ধরেই বলিউডে কামব্যাক করছেন সেলিনা জেটলি।
প্রসঙ্গত, সেলিনা অভিনীত চরিত্রটিতে প্রথমে পাওলি দামকে কাস্ট করেছিলেন পরিচালক। কিন্তু ডেট অ্যাডজাস্ট করতে না পারার কারণে ছবিটি থেকে সরে দাঁড়ান পাওলি। অ্যাসর্টেড মোশন পিকচার্স ও এস এস ওয়ান এন্টারটেনমেন্টসের ব্যানারে নির্মিত শর্ট ফিল্ম পরিচালনা করছেন অভ্র চক্রবর্তী। ৩০ মিনিটের এই ছবিটির শুটিং খুব তাড়াতাড়ি শুরু হবে কলকাতায়। ছবির সংগীত পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন শৈলেন্দ্র সায়ন্তী।
জানা গেছে যে কুমার শানুর ছেলে জান এই ছবির হাত ধরেই প্লেব্যাক ডেবিউ করতে চলেছেন বলিউডে। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা ‘কুঞ্জবন’ গানটি শোনা যাবে জানের কণ্ঠে।
রামকমলের ছবিতে নিজের কামব্যাক প্রসঙ্গে সেলিনার মন্তব্য, দুবাইতে যখন রামকমল আমায় এই ছবির গল্প ও চিত্রনাট্য শোনায় আমি তখনই এই ছবিতে কাজ করতে রাজি হয়ে গিয়েছিলাম। ছবির চিত্রনাট্যটা শুনেই আমার বেশ পছন্দ হয়েছিল। বিয়ে এবং মাতৃত্বের পরে কামব্যাকের জন্য আমার এমন একটা বিষয় ভাবনার প্রয়োজন ছিল, যেটা একজন পারফর্মার হিসাবে আমাকে উত্তেজিত এবং উৎসাহিত করে। এই রকম একটা চরিত্র যে কোনও অভিনেত্রীর কাছেই লোভনীয়। গত ১৮ বছর ধরে আমি এলজিবিটিদের নিয়ে কাজ করছি। ট্রান্সজেন্ডারদের সমস্যা নিয়ে কাজ করার সময় থেকেই। ঋতুদা আমার অনুপ্রেরণা। তাকে ছাড়া আজও আমরা এক মুহূর্ত ভাবতে পারি না।
কলকাতায় শুটিং প্রসঙ্গে সেলিনার অভিমত, এই প্রথমবার আমি কলকাতায় কোনও ছবির শুটিং করব। তাই আমি ভীষণই এক্সাইটেড।
রামকমলের মতে, সেলিনা আমার অনেকদিনের বন্ধু। আর এই চরিত্রটির জন্য আমি এমন একজনকে খুঁজছিলাম যিনি একিটি যথাযোগ্য মর্যাদা দিতে পারবেন। সেলিনা খুব আবেগপ্রবণ। আশা করছি দর্শকরা নিরাশ হবেন না।
অপরদিকে রামকমলের এই ছবিটি থেকে সরে দাঁড়ানো প্রসঙ্গে পাওলির অভিমত, রামকমলের এই ছবিটা করতে না পারার জন্য আমার সত্যিই ভীষণ খারাপ লাগছে। রামকমল আমার বন্ধু। তার উপর এই ছবিটা ছিল ঋতুদাকে শ্রদ্ধার্ঘ্য। আসলে আমার আগে থেকেই কিছু কমিটমেন্ট ছিল। তাই ডেট অ্যাডজাস্ট করতে পারছিলাম না। সেই জন্য ছবিটা আর করা হল না। গোটা টিমকে শুভেচ্ছা জানাই। আশা করছি আমরা আবার খুব তাড়াতাড়ি একসঙ্গে কাজ শুরু করব।
[pullquote align="normal"] [/pullquote]
Powered by Blogger.