‘র‌ণবীর! নো কমেন্টস...’‌


বর্তমান সময়ে বলিউডের আলোচিত তারকাদের একজন আলিয়া ভাট। তাঁর বাবা প্রথিতযশা পরিচালক মহেশ ভাট এবং মা সোনি রাজদান একজন অভিনেত্রী। এ দু’জন সম্প্রতি ‘ইয়োর্স ট্রুলি’ শিরোনামে একটি ছবিতে অভিনয় করেছেন। সেই ছবি আবার ঠাঁই পেয়েছে এবারের কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবে। এ উপলক্ষে বাবা-মায়ের সঙ্গে কলকাতায় এসেছেন আলিয়া। সেখানে তিনি কলকাতার গণমাধ্যমের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেছেন। সাক্ষাৎকারের কিছু অংশ থাকলো পাঠকদের জন্য-
বাবা আর মাকে একসঙ্গে অভিনয় করতে দেখে কেমন লাগল?‌

প্রথমবারের মতো বাবা আর মা-‌কে একসঙ্গে পর্দায় দেখলাম। আমার বাবা মহেশ ভাট তো একজন পাকা অভিনেতা। তবে মাও কম যান না। পুরো ছবিতে মা-‌কে মুগ্ধ হয়ে দেখেছি। বাবা তো বলছিলেন, মায়ের অভিনয় মন দিয়ে দেখ, অভিনয়টা শিখতে পারবে। স্বীকার করতে বাধা নেই, মায়ের কাছ থেকে অনেক কিছুই শিখলাম।

এর আগে তো মায়ের সঙ্গে `‌রাজি`‌ ছবিতে অভিনয় করেছেন। সেই অভিজ্ঞতা কেমন ছিল?

(‌হেসে)‌ শুটিং সেটে তো মা-‌কে মা বলেই মনে হয়নি। একজন অগ্রজ আর অনুজ শিল্পীর মধ্যে যে ধরনের সম্পর্ক থাকে, সেটে ঠিক সে রকমই ছিল আমাদের সম্পর্ক। মা শুটিং সেটে থাকাকালীন ভুলেই গিয়েছিলেন আমি তাঁর মেয়ে।

`‌রাজি` ছবিতে এমন একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেনযে দেশের জন্যে প্রাণ দিতেও রাজি। এমন নারী কি বাস্তবে খুঁজে পাওয়া যায়?

আমি বিশ্বাস করি আছেন। তাঁদের জন্যেই সভ্যতা ক্রমশ এগিয়ে যাচ্ছে। এটা ঠিক যে, কোনো একটি কাজ করতে গেলে প্রত্যেকেই শুরুতে নিজের নিরাপত্তার কথা ভাবেন। কিন্তু দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেলে তাঁরাই কিন্তু অন্য মানুষ হয়ে যান। দেশের সৈনিকরা কি দেশের জন্যে প্রাণ দেন না?‌ এটাও অনেকটা সেরকম। 

বলিউডে গত ছয় বছর ধরে আপনার ব্যাস্ত সময় কাটছে। হাঁপিয়ে ওঠেন নাবিষয়টি কিভাবে দেখেন?

একেবারেই না। কাজের ব্যস্ততার মধ্যেই আমি বেশ ভাল থাকি। প্রতিটি নতুন ছবি শুরুর আগে যেন নতুন করে বাঁচার শক্তি পাই।

এখন কোন কোন ছবিতে কাজ করছেন?‌

সম্প্রতি রণবীর সিং-‌এর সঙ্গে `‌গালি বয়`‌ ছবির কাজ শেষ করেছি। এখন চলছে করণ জোহরের সঙ্গে `‌ব্রহ্মাস্ত্র`‌ আর `‌কলঙ্ক`‌ ছবির কাজ।

মায়ের সঙ্গে অভিনয় করেছেন। এবার বাবা আর মা একসঙ্গে অভিনয় করলেন। কিন্তু আপনি নেই। ভবিষ্যতে বাবা-মায়ের সঙ্গে অভিনয় করার কথা ভেবেছেন?

ও:, সেটা হবে দারুণ ব্যাপার। নিঃসন্দেহে একটা মজার অভিজ্ঞতা হবে। পরিচালক সঞ্জয় নাগকে(‘ইয়োর্স ট্রুলি’ ছবির পরিচালক) ধন্যবাদ যে, তিনি বাবা আর মাকে একসঙ্গে কাস্ট করেছেন। ভবিষ্যতে যদি তাঁদের সঙ্গে আমার কথাও ভাবেন, তাহলে আর একটা ধন্যবাদ তাঁর নিশ্চয়ই প্রাপ্য (‌হাসি)‌।

ভবিষ্যতে বাংলা ছবি করার আগ্রহ আছে?‌

নিশ্চয়ই আছে। কেন নয়! হিন্দির পাশাপাশি ভারতের সবরকম ভাষার ছবিতে আমার কাজ করার ইচ্ছা আছে। বাংলা ছবিতে কাজ করতে চাই পরিচালক সৃজিতের মুখার্জীর সঙ্গে। তেমন কোনো প্রস্তাব পেলে অবশ্যই কাজ করবো।

রণবীর কাপুরকে বিয়ে করছেন কবে?‌

(‌হেসে) র‌ণবীর! নো কমেন্টস...‌ 
Powered by Blogger.