রাজ্য সরকারের উত্তর না মেলায় স্বেচ্ছামৃত্যু বরণ করতে চান শিক্ষক

[pullquote align="normal"] [/pullquote]



নিজস্ব প্রতিনিধিঃ শিক্ষামন্ত্রী থেকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নবান্নে পর্যন্ত সরকারি চাকুরির জায়গা স্থানান্তরিত করার আবেদন বহুবার করে কোনও নির্দিষ্ট উত্তর না পাওয়ায় স্বেচ্ছামৃত্যুর আবেদন জানান এক ব্যক্তি। জানা গিয়েছে,প্রতিদিন ১৩০ কিলোমিটার পথের দূরত্বে স্কুলে যাতায়াত করে অসুস্থতার শিকার হন তন্ময় ঘোষ নামে প্রাথমিক স্কুলের সহকারী শিক্ষক। বাড়ি কেশবনগর কাশিমবাজার, বহরমপুর থানার অন্তর্গত মুর্শিদাবাদ এলাকায়। তার অভিযোগ, তার সহকর্মীদের বারংবার অন্য স্কুলে বদলি করা হয়েছে।এবং এক-একজনকে প্রয়োজনের তুলনায় অনেকবার করেও বদলি করা হয়েছে। তন্ময় বাবুর স্কুল জলঙ্গী উত্তরচক্রের অধীন ২৭ নং জামালপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়। তিনি সেখানে সহকারি শিক্ষক পদে নিয়োগ রয়েছেন। তবে তার বাড়ি থেকে স্কুলের দূরত্ব ৬৫ কিলোমিটার। প্রত্যেকদিন ১৩০ কিমি পথ অতিক্রম করে যাতায়াত তার পক্ষে খুবই কষ্টকর হয়ে পড়েছে। যার কারণে তিনি বারংবার বদলির জন্য আবেদনও করেছেন। কিন্ত ফল কিছু হয়নি।

তন্ময় বাবুর আরও অভিযোগ, তিনি এই বিষয়ে লিখিতভাবে চিঠি নবান্নে, শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও রাজভবনে পাঠান। পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন সোশ্যাল সাইটের মাধ্যমে তাঁদেরকে জানান, তবে কোনও উত্তর মেলেনি বলে দাবী তার।তিনি বলেন, এই দূরত্ব বজায় রাখায় তিনি মানসিক অবসাদ, অসুস্থতার শিকার হন, এর থেকে মুক্তি পাওয়ার একটাই উপায় স্বেচ্ছামৃত্যু গ্রহণ করা।ফলে রাজ্য সরকারের কাছে আবেদন তন্ময় ঘোষের চাকুরি মুর্শিদাবাদের কাছাকাছি কোনও স্কুলে স্থানান্তরিত করে দেওয়া বা তাকে যেন স্বেচ্ছামৃত্যুর অনুমতি দেওয়া হয়।
[pullquote align="normal"] [/pullquote]
Powered by Blogger.