শোভন-রত্নার পরকীয়া চর্চায় টলমল মেয়র পদ


নিজস্ব প্রতিনিধি,কলকাতাঃ এতদিন শোভন আর বৈশাখীর ‘পরকীয়া’ নিয়ে জোর চর্চা চলেছে সব মহলে৷ এবার সেই ‘কাহানিতেই ট্যুইস্ট’ আনলেন কলকাতার প্রাক্তন মেয়র৷ হাজির করলেন নতুন এক ‘কুশীলব’কে৷নাম অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়৷ বাড়িতে ও পরিচিত যিনি ‘চিকু’ নামেই সমধিক পরিচিত৷ বুধবার সন্ধ্যায় একটি বাংলা বৈদ্যুতিন সংবাদমাধ্যমের কাছে শোভন দাবি করলেন, চিকুই তাঁর স্ত্রী রত্নার প্রেমিক৷ চিকুর সঙ্গে পরকীয়ায় জড়ানোর জন্যই রত্নার সঙ্গে তাঁর সম্পর্কে চিড় ধরে৷রাজ্যের প্রাক্তন দমকল মন্ত্রীর বক্তব্য, সম্পর্কের মতান্তরের সেই আগুনে ঘি ঢেলে ছিলেন তাঁর স্ত্রী৷ তাঁর কাছে দাবি করেছিলেন, ‘‘বেশ করেছি, প্রেম করেছি৷’’

(আরও পড়ুনঃ মেয়র ইস্তফা,নয়া সিলেকশন নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর যুক্তি)

ফলে শোভন-রত্না দ্বৈরথে বুধবার সন্ধ্যায় যুক্ত নতুন মাত্রা৷ যা কার্যত চমকে দিয়েছে বাংলার প্রতিটি বাসিন্দাকে৷ কিন্তু এই দ্বৈরথ যে মেগা সিরিয়ালকে হার মানাতে চলেছে, তা বোঝা যায় আর কয়েক মিনিট পর৷ যখন ওই বৈদ্যুতিন চ্যানেলেই পালটা শোভনকে একের পর এক অভিযোগে বিঁধতে থাকেন স্বামীকে৷রত্না স্পষ্ট জানিয়েছেন, চিকু তাঁর থেকে ১৫ বছরের ছোট৷ তাই চিকুর সঙ্গে এমন সম্পর্কের কথা তিনি ভাবতেও পারেন না৷ একই কথা জানিয়েছেন চিকুও৷ তাঁর কাছে রত্না চট্টোপাধ্যায় ‘দিদিভাই’, সাফ জবাব অভিজিতের৷


পাশাপাশি রত্না বলেন,২২ বছর ধরে শোভনের সঙ্গে সংসার করেছি ভাবলে ঘৃন্না করে।প্রত্যেক বছর জামাই ষষ্ঠীতে রত্নার মা শোভন চট্টোপাধ্যায়কে আদর করে খাওয়াতেন,কিন্ত সেই শ্বাশুড়ি অসুস্থ হয়ে মারা গেলে তার প্রতি কোনো কষ্ট শোভন বাবুর মধ্যে দেখেননি বলে দাবী স্ত্রী রত্নার।অথচ বান্ধবী বৈশাখীর মায়ের প্রতি তাঁর কষ্ট দেখেন রত্না।রত্না আরও বলেন,"আমি মুখ খুললে শোভন চ্যাটার্জী দাঁড়াতে পারবে তো?আমি কি করতে যাচ্ছি ,কাল বুঝবে।মানহানির মামলা করে খোরোশের দাবি করব না।শুধু বিচারকের কাছে আর্জি জানাবো,শোভন চ্যাটার্জীকে দশবার কান ধরে উঠবোস করতে হবে।"
Powered by Blogger.