চন্দননগরের সঙ্গে পাল্লা দিচ্ছে সোনারপুরের জগদ্ধাত্রী পুজো




মৃন্ময় নস্কর ,দক্ষিন ২৪ পরগণা :১৮ লক্ষ টাকার পাথরের মূর্তি ৫০ লক্ষের বাজেট। চন্দননগরের সঙ্গে একাই পাল্লা দিচ্ছে সোনারপুরের বৈকন্ঠপুর সাধারন সন্মেলনীর জগদ্ধাত্রী পুজো। রাজস্থানের জয়পুর থেকে ১৮ লক্ষ টাকা দামের ভিয়েতনাম পাথরের জগদ্ধাত্রী প্রতিমা এসেছে। প্রতিমার উচ্চতা ৮ ফুট। এই পুজোর বাজেট ৫০ লক্ষ টাকারও বেশি। সুন্দর দেখতে ওই জগদ্ধাত্রী প্রতিমা থেকে দর্শকরা চোখ ফেরাতে পারছেন না। সোনার সীতাহার, হীরের টিপ এবং সোনার তৈরি মায়ের ত্রিনেত্র দিয়ে প্রতিমাকে সাজানো হয়েছে। সোনারপুরের এই জগদ্ধাত্রী প্রতিমা দেখতে প্রতিদিন বৈকন্ঠপুরে মানুষের ঢল নামছে। বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান ব্যানার্জী ও বেলুড়মঠের মহারাজের হাত দিয়ে এই প্রতিমার উদ্বোধন হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীও শুভেচ্ছা বার্তা পাঠিয়েছেন। বৈকন্ঠপুর সাধারন সন্মেলনীর পুজো এবার ৫০ বছর পা রেখেছে। তাই এই পুজোতে এবার জাঁকজমকের শেষ নেই। জগদ্ধাত্রী পুজো বলতে মানুষ চন্দননগরকেই চেনেন। কিন্তু সোনারপুরের এই পুজো মানুষের এবার নজর কেড়েছে। পুজো কমিটির সভাপতি নিত্যানন্দ ঘোষ ও প্রধান উপদেষ্টা এলাকার পুরমাতা কবিতা ঘোষ জানান, এই পুজোর প্রাণ ছিলেন গৌর চন্দ্র ঘোষ। তিনি মারা যান। তাঁর ইচ্ছে ছিল এই পুজোতে পাথরের প্রতিমা আনবেন। তাই প্রায় ১ বছর ধরে পরিকল্পনা করে এই পাথরের প্রতিমা নিয়ে আসা হয়েছে। পুজো উপলক্ষ্যে যাত্রা, নাটক, গান, লোকগীতি, বিচিত্রানুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। বসেছে মেলাও। দরিদ্রনারায়ন সেবার ব্যবস্থাও রয়েছে। শুধু মা নয়, শিবের মূর্তিও প্রতিষ্ঠিত করা হয়েছে।
Powered by Blogger.