ভারত-নেপালের চালু হচ্ছে প্রথম রেল পরিষেবা

[pullquote align="normal"] [/pullquote]

ভারত থেকে নেপালের মধ্যে চালু হচ্ছে প্রথম রেল পরিষেবা। সব কিছু ঠিক থাকলে ডিসেম্বরেই চালু হতে পারে এই রেল পরিষেবা। রেলমন্ত্রক থেকে এমনটাই জানা গেলো । যদিও প্রথমে যাবে যাত্রীবাহী ট্রেন চলবে । পরে ব্রডগেজ লাইনে রূপান্তর এই পরিষেবা চালু হবে বিহারের জয়নগর থেকে দক্ষিণ-পূর্ব নেপালের ধানুসা জেলার কুর্তা পর্যন্ত ৩৪ কিলোমিটার দীর্ঘ পথে। যদিও এই যাত্রাপথে থাকবে অভিভাসন দফতরে র চেকপোস্ট। জয়নগরে হবে এই পোস্ট। ভারত ও নেপালের নাগরিকদের ক্ষেত্রে কোনও ভিসা লাগবে না।নেপালের কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে, ট্রেনটি দিনে চার বার করে যাতায়াত করবে । এই পরিষেবা চালু রাখার ক্ষেত্রে নেপাল ভারতের কাছ থেকে রেক, এবং অন্যান্য সামগ্রী লিজের ভিত্তিতে নেবে। এই পরিষেবা চালুর বিষয়ে ভারতের বিদেশি মন্ত্রকের তরফে রেল মন্ত্রক, নেপাল সরকার এবং সংশ্লিষ্ট সকলের সঙ্গে একাধিকবার বৈঠক করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, চিনের পক্ষ থেকে বেজিং ও কাঠমাণ্ডুর মধ্যে রেল পরিষেবা চালুর সিদ্ধান্ত নিতেই নড়েচড়ে বসে ভারত। নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলির সাম্প্রতিক ভারত সফরের সময়েই এই রেল পরিষেবা নিয়ে কথা হয়। নেপাল ও ভারতের মধ্যে চারটি রেল পরিষেবা চালুর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য রক্সৌল-কাঠমাণ্ডু লাইন।

ভারত ও নেপালের মধ্যে রেল পরিষেবা চালুর জন্য মোট খরচ হবে ৫০০ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় কাজ শেষ করার কথা ইতিমধ্যে বলা হয়েছে। জানা গিয়েছে, তিন পর্যায় লাইন পাতার কাজ হবে বলে জানা গিয়েছে।
[pullquote align="normal"] [/pullquote]
Powered by Blogger.