দিলীপের পুলিশ হুঁশিয়ারী শুনতে কয়েক হাজার জনগণ

[pullquote align="normal"] [/pullquote]

নিজস্ব প্রতিনিধি,গোসাবা‌ঃ শনিবার বিকালে দক্ষিণ ২৪ পরগনার গোসাবা ব্লকের ছোট মোল্লাখালি পার্ক ময়দানে বিজেপি মন্ডল কমিটির আয়োজনে এক প্রতিবাদ সভার আয়োজন হয়।শনিবার সভায় উপস্থিত ছিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি তথা বিধায়ক দিলীপ ঘোষ,বিজেপি জেলার পূর্ব সভাপতি সুনীপ দাস,সহ সভাপতি মৃগাঙ্ক রায় (বাপি) প্রমূখ।এদিনের প্রতিবাদ সভায় বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন এই ব্লকের রাঙাবেলিয়া, সাতজেলিয়া, লাহিড়ীপুর, বালি ২ সহ বিভিন্ন এলাকায় বেছে বেছে বিজেপি কর্মীদের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে।


এবার পঞ্চায়েত নির্বাচনে এই ব্লকের একাধিক জায়গায় বিজেপি ভালো ফল করার কারণে রাতের অন্ধকারে বেছে বেছে বিজেপি কর্মীদের বাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটে চলেছে।এমনকি বেধড়ক মারধোর করা হচ্ছে বিজেপি কর্মীদের।তিনি অভিযোগ করে বলেন পুলিশের সামনেও বিজেপি কর্মীদের মারধোর করা হলে পুলিশ কোন ব্যবস্থা নেয়নি। বহু বিজেপি কর্মী সমর্থক ঘরছাড়া হয়ে রয়েছেন।এ বিষয়ে থানায় একাধিক অভিযোগ দায়ের করা হলেও পুলিশ কোন ব্যবস্থা নেয়নি বরং পাল্টা বিজেপি কর্মীদেরকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানে।একপ্রকার বিজেপি আগামী ২০১৯ সালে লোকসভা নির্বাচনের প্রচার শুরু করলেন সুন্দরবনের এই প্রত্যন্ত এলাকা থেকে।বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ এদিন বিজেপি আক্রান্ত দলীয় কর্মীদের পাশে দল সব সময় পাশে থাকবে তার আশ্বাস দিয়ে বলেন সারা বাংলা জুড়ে বিজেপি সহ বিরোধীরা আক্রান্ত। তৃণমূল কংগ্রেস পুলিশ প্রশাসনকে সাথে নিয়ে সন্ত্রাস চালাচ্ছে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের উপর। তাদের একটাই দোষ যে তারা বিজেপিকে ভোট দিয়েছে বা বিজেপি দলের সমর্থক। আমরা চাই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এ রাজ্যের বুক থেকে এই সন্ত্রাসের অবসান ঘটুক। দলের সমস্ত কর্মীদের পাশে আছি।আগামী ২০১৯ সালে লোকসভা নির্বাচনে দিদির ভাইয়েরা দাদাগিরি করতে পারবে না।কারণ নির্বাচন করার জন্য দিল্লী থেকে দাদার পুলিশ বাহিনী আসবে। দিদির ভাইয়েরা যদি দাদাগিরি দেখায় তাহলে তাদেরকে ভাগিয়ে দেওয়া হবে এবং দিদির পুলিশ বাহিনীকে বসিয়ে রেখে খৈনী হাতে ধরিয়ে ডলতে বলে বিশ্রাম করতে বলা হবে। বর্তমানে যে সব পুলিশ কর্মী তৃণমূলের হয়ে দাদাগিরি করছে আমরা ক্ষমতায় এলে তাদেরকে আগেই হিসাব দিতে হবে।বাংলা থেকে অন্য কোথাও পালাতে পারবেন না।এছাড়া বক্তব্য রাখেন বিজেপি জেলা পূর্ব সভাপতি সুনীত দাস প্রমুখ।এদিনের প্রতিবাদ সভায় সাধারণ মানুষের ভীড় ছিল চোখে পড়ার মতন।
[pullquote align="normal"] [/pullquote]
Powered by Blogger.