মেসিকে ছাড়াই রিয়ালকে ৫ গোল বার্সার

[pullquote align="normal"] [/pullquote]

মৌসুমের প্রথম এল ক্ল্যাসিকো শুরুর আগেই ম্যাড়ম্যাড়ে ভাব চলে এসেছিল। কারণ এতে খেলছেন না চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী লিওনেল মেসি আর ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। দুজনের এল ক্ল্যাসিকোতে আর কখনই হয়তো দেখা হবে না। কারণ রিয়াল ছেড়ে সিআর সেভেন এখন জুভেন্তাসে। কিন্তু মেসিকে ছাড়া বার্সেলোনা যতটা দাপট দেখাল, রিয়াল রোনালদোকে ছাড়া তার ধারেকাছেও যেতে পারল না! ক্যাম্প ন্যুতে জুলেন লোপেতেগির দল হারল ৫-১ গোলের বিশাল ব্যবধানে।
রবিবার রাতের ম্যাচে আর্জেন্টাইন তারকার অভাব বুঝতেই দেননি লুইস সুয়ারেস। উরুগুয়ের এই ফরোয়ার্ডের হ্যাটট্রিকে মৌসুমের প্রথম ক্লাসিকোতে রিয়াল মাদ্রিদকে গুঁড়িয়ে দিয়েছে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠে এসেছে আর্নেস্তো ভালভের্দের দল। অন্য দুটি গোল ফিলিপ কুতিনহো ও আর্তুরো ভিদাল। লিগে এই নিয়ে টানা পাঁচ ম্যাচ জিততে পারল না রিয়াল। হারল টানা তিন ম্যাচে।
ম্যাচের একাদশ মিনিটেই এগিয়ে পেয়ে যায় বার্সেলোনা। বাঁ দিক দিয়ে বল নিয়ে অনেকটা দৌড়ে ডি-বক্সে ঢুকে জর্দি আলবার কাটব্যাকে বাঁ পায়ের প্লেসিং শটে কাছের পোস্ট দিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার কুতিনহো। ৩০তম মিনিটে স্পট কিকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন সুয়ারেস। প্রথমার্ধে কোনো দলই আর গোলের দেখা পায়নি।
দ্বিতীয়ার্ধে নতুন উদ্যমে মাঠে নামে রিয়াল মাদ্রিদ। ৫০তম মিনিটে ব্যবধান কমান মার্সেলো। ডান দিক থেকে ইসকোর ক্রস বার্সেলোনার এক জনের পায়ে লেগে চলে যায় ব্রাজিলিয়ান এই ডিফেন্ডারের কাছে। বুক দিয়ে বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে বল জালে পাঠান তিনি। ৫৬তম মিনিটে ডি-বক্সের মধ্যে থেকে লুকা মদ্রিচের শটে বল পোস্টের নিচের অংশে লাগলে সমতায় ফিরতে পারেনি রিয়াল। এরপর আবার শুরু হয় বার্সেলোনার আক্রমণ।
৭৫তম মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোল করে ব্যবধান ৩-১ করে ফেলেন সুয়ারেস। সের্হিও রবের্তোর বানিয়ে দেওয়া বলে প্রায় ১৬ গজ দূর থেকে জোরালো হেডে পরাস্ত করেন কোর্তায়াকে। ৮৩তম মিনিটে কর্তোয়ার মাথার ওপর দিয়ে নিখুঁত শটে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন সুয়ারেস। চলতি লিগে তার মোট গোল হলো ৭টি। রিয়ালের কফিনে ৮৭তম মিনিটে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন ১ মিনিট আগে বদলি হিসেবে নামা ভিদাল। দুর্দান্ত এক জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বার্সেলোনা।
[pullquote align="normal"] [/pullquote]
Powered by Blogger.